মেনু নির্বাচন করুন

এক নজরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের নিমিত্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে সরকার এ খাতকে বিশেষ গুরুত্বারোপ করে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সর্বব্যাপী প্রয়োগ ও ব্যবহারে কারিগরি সহায়তা নিশ্চিতকরণ; তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সুবিধা সমূহ প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছানো, অবকাঠামো নিরাপত্তা বিধান; রক্ষণাবেক্ষণ; বাস্তবায়ন; সম্প্রসারণ মান নিয়ন্ত্রণ ও কম্পিউটার পেশাজীবীদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে  দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ই-সার্ভিস প্রদান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ৩১ জুলাই, ২০১৩ তারিখে ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর’ গঠন করা হয়।   

এক নজরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরঃ

=> অধিদপ্তরের নামঃ    তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর;

=> প্রশাসনিক বিভাগঃ   তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ;

=> মন্ত্রণালয়ঃ        ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়;

=> প্রতিষ্ঠার তারিখঃ   ৩১ জুলাই, ২০১৩;

=> প্রধান কার্যালয়ঃ  ই-১৪/এক্স, আইসিটি টাওয়ার,আগারগাঁও, ঢাকা-১২০৭।

অধিদপ্তরের জনবল কাঠামোঃ

 

প্রধান কার্যালয়

 

১ম শ্রেণী

২৪

 

মোট: ৭৬

 

২য় শ্রেণী

০৪

৩য় শ্রেণী

২৬

৪র্থ শ্রেণী

২২

জেলা কার্যালয়

 

১ম শ্রেণী

১২৮

মোট: ৩৮২

 

৩য় শ্রেণী ও ৪র্থ শ্রেণী

২৫৬

উপজেলা কার্যালয়

১ম শ্রেণী

৪৮৮

মোট: ১৪৬৪

৩য় শ্রেণী ও ৪র্থ শ্রেণী

৯৮০

 

সর্বমোট

১৯২২

বর্তমানে প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত

৭ জন

কার্যকর উদ্দেশ্য:

১) দেশের সর্বনিম্ন স্তর পর্যন্ত উচ্চ গতির ইলেক্ট্রনিক্স সংযোগ ব্যবস্থা সৃষ্টি করা।

২) সারা দেশে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে যথাযথ অবকাঠামো সৃষ্টি করা।

৩) সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডের সমন্বয়সাধন।

৪) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট অবকাঠামো হতে নিরবিচ্ছিন্ন সেবা প্রদানের উদ্দেশ্য কার্যকর রক্ষণাবেক্ষন।

৫) সরকারি পর্যায়ে দক্ষ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রোফেশনাল সৃষ্টির লক্ষ্যে আইসিটি সার্ভিস সৃষ্টি।

৬) দ্রুত পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির জন্য প্রশিক্ষিত জনবলের সক্ষমতা বৃদ্ধি।

৭) সরকার ও জনগনের সকল স্তরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি জ্ঞান সম্প্রসারণ।

8) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট আইন, নীতিমালা, গাইডলাইন ও প্রমিতকরণ প্রস্তুতকরণ।

৯) আইসিটি সেবা ও পণ্যের ব্যবহারিক ক্ষেত্রে ইন্টার-অপারেবিলিটি সৃষ্টি ও রক্ষণাবেক্ষন।

১০)গবেষণা, নিত্য-নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং প্রয়োগে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান।